কার্নিশে ঝুলে ছিল আকাশ

কার্নিশে ঝুলে ছিল আকাশ ___কার্নিশে ঝুলে ছিল আকাশ কার্নিশে ঝুলে ছিল আকাশ তোমার অভিমান দেখবে বলে! বেলা যখন পড়ে এলো-; তন্দ্রামাখা মুখ নিয়ে দাঁড়ালে বারান্দায় বিরহের সুত্র খুঁজতে দেরি হয়নি তার! এলোকেশে বালিশের গা ঘেঁসা দাগ তোমার টোল পরা গালে এখনো জ্বল জ্বলে; টিপটা একটু উপরে উঠে গেছে এই যা’ এ যে নিত্য বে’দৌরা বেশভূষার […]

আশ্বিনের পঞ্চপদ

আশ্বিনের পঞ্চপদ হাটু জলে ফুটপাত শরতের মেঘ ভিজালো পথের বাঁক! হাটুজল ফুটপাত নিচে তল গাড়ী গুলো চলছে দ্যাখো জলের বাজনা বাজিয়ে; ফুটপাতের নকশা যুগোল খসে পড়ে ধীর লয়ে! আগাছা গুলো নৈছাবদ জল ফুরালেই উঠবে জেগে সাহেব সুবোদ হাঁটে দ্যাখো খালি পায়ে; ময়লা জলের গন্ধছুটে। শরতের মেঘ একটু আগে, সাদা মেঘের পাহাড় জমা আকাশ জুড়ে! ভবনগুলো […]

পথে হেঁটে যেতে পার

পথে হেঁটে যেতে পার পথে হেঁটে যেতে পার ফুটপাত ব্যপি হকারদের আবহনে! সর্পপথ মাড়িয়ে; এখানে ওখানে ঘুরে ঐ সেই পথে একটু মুক্ত হাওয়া বয় সম্মুখে লেক সোপান শরতে জল ভরা; মিহি ঢেউয়ের জলবিথিকা নিরন্ন আবশে উত্তরের পাড় ছুঁয়ে দেয়। হাজার পথিকের ঘমাক্ত উৎকট গণ্ধের বিমর্ষ কোলাহলে ভাসে; গাড়ি, রিকশা বাস, অটো, টেম্পুর হর্ণ কোলাহলে ভেঁপু […]

একটু দূরে এক পা বাড়ালেই

একটু দূরে এক পা বাড়ালেই বর্ষার ছিপ ফেলানো জলের ছাপ এখনো জ্বল জ্বল করছে নন্দন নগর জুড়ে! কাশফুলের গন্ধ মাখা মেঘের হাওয়া বইছে উতালপাথাল, আকাশ তার খেড়োখাতায় নীলের জমিন পাড়ে সাদা মেঘের উল্কি আঁকে, শঙ্খচিলের পালক দিয়ে। ইচ্ছে হলেই, ফড়িং ডানায় যত সামান্য কাব্যকথা সবুজ ঘাসের নন্দনপুরে; শৈশবের ঐ ঘুড়ি উড়ে শালিক জটলা সবুজ ঘাসে […]

সাদা মেঘের আঁড়ালে

সাদা মেঘের আঁড়ালে শারদীয় আমন্ত্রণ! ফিরে এলে তুমি তোমার সেই শৈশবের উঠানে; সে তো কত বছর হবে বলতো? বুড়িয়ে গেছে, তোমার সাথে বেড়ে উঠা ঐ যে সজনে গাছটা সে দিন তুমি ছিলে একলা বটে; দু’চার জন পাড়ার খেলার সাথী আর এখন মস্তবড় সংসার তোমার; বাড়ীময় উঠোন দ্যাখো গম গম করছে তোমার আত্মজার পদভারে। ঐ যে […]

ঘুনে ধরা খিড়কি খসে পড়ে, সিঁথানে

ঘুনে ধরা খিড়কি খসে পড়ে, সিঁথানে কালের ক্ষতে এখন দগদগে ঘা পুঁজ চুঁইয়ে পড়ে; ক্ষতের মাংস খসে পড়ে এখন পোকাগুলো কিলবিল করে যেন মৃত খায় কুঁড়ে কুঁড়ে ভূ-ভক্ষ কিটের দল। সেই ক্ষত এখন কালসিটে দাগ ঘুটঘুটে আঁধার রাতে; এক চিলতে জোনাক আলো যেন কামাক্ষা সমীপে দরাজ জানলা খুলে দেয় স্বপ্ন দুয়ার দিগন্তজুড়ে নীলের ভারি টান! […]

ক্ষুধার জন্য টান টান বাসনা খসে পড়ে

ক্ষুধার জন্য টান টান বাসনা খসে পড়ে ক্ষুধার জন্য টান টান বাসনা খসে পড়ে ইট সুরকির পুরাতন দালানের মতো স্বপ্নগুলো চুঁইয়ে চুঁইয়ে কদাচিত ধুমকেতুর ফলা বুনে যায় অরন‌্যের বিনুনীতে সদ্য ফোটা ফুলের তোরায় মধুর গুঞ্জণ নেশার হাট বসে সহসা; করতলে ছিল যে মাছি কৌতহল বসত মৃত! তুচ্ছ লীলায় ধুলোর আবিরে এখন কি অধিকার ছিল তারে […]